ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সম্পাদক লিখতে পারেন না জিয়াউর রহমানের নামের বানান

  • বাংলা মিরর ডেস্ক
  • ২৮,সেপ্টেম্বর,২০২২ ০৭:১৭ PM

জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের পূর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষিত হওয়ার সাথে সাথেই বিস্তর অভিযোগ উঠেছে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে। এর মধ্যে অন্যতম হলো উৎকাচের বিনিময়ে বাছবিচার ছাড়াই সংগঠনের নানা পদে লোক বসানো। অভিযোগ উঠেছে দুই শীর্ষ নেতারা ভাগ-বাটোয়ারা করেই এসব করে চলেছেন। আর অযোগ্যরা গুরুত্বপূর্ণ পদ পেয়ে ধরাকে সরা জ্ঞান করছেন। 

এমনকি অছাত্র, অযোগ্যদের দিয়ে ছাত্রদলের কমিটিতে হলের নামের বানান ঠিকভাবে লিখতে পারে না এমন নেতারও জায়গা পেয়েছেন। 

"মুক্তিযোদ্ধা, প্রেসিডেন্ট, এমনকি জিয়াউর রহমান নামটা সঠিকভাবে লিখতে পারেনা সে কিনা কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা", অভিযোগ করেছেন ছাত্রদলের এক পদ বঞ্চিত নেতা। 

তিনি অভিযোগ করেন "নব গঠিত কমিটির সহ-যোগাযোগ সম্পাদক মোঃ জহিরুল ইসলাম (রুবেল) জিয়াউর রহমানের নামের বানান ও ভুল করেন, তিনি এক জায়গায় লিখেছেন "মুক্তিযদ্দা শহীদ প্রেছিডেন্ট জিয়ায়ুর রহমান " তিনি আবার নেতা হয়েছেন কেন্দ্রীয় কমিটিতে এটা কীভাবে সম্ভব" 

এবিষয়ে কথা বলতে চাইলে মুঠোফোনে বারবার চেষ্টা করেও ছাত্রদলের সভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ এবং সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েলকে পাওয়া যায় নি। 

এর আগে, ছাত্রদলের যে কমিটি ঘোষণা করা হয়েছিল সে কমিটিতে ৩০২ জন ছাত্রনেতাকে রেখে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। 

রবিবার (১১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ কমিটির অনুমোদন দেন। 

এর আগে গত ১৭ এপ্রিল কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণকে সভাপতি, সাইফ মাহমুদ জুয়েলকে সাধারণ সম্পাদক করে ছাত্রদলের পাঁচ সদস্যের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছিল। 

ছাত্রদলের নতুন এ কমিটিতে ২২ জনকে সহসভাপতি এবং ১৪৫ জনকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাখা হয়েছে। এর বাইরেও ৩৮ জনকে সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক রাখা হয়েছে। কেন্দ্রীয় কমিটির যোগাযোগ সম্পাদক করা হয়েছে মিনহাজ আহমেদ প্রিন্সকে। 

একই দিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল শাখারও কমিটি ঘোষণা করা হয়। খোরশেদ আলম সোহেলকে সভাপতি আর আরিফুল ইসলামকে সাধারণ সম্পাদক করে ৩৩ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করেন রিজভী।

সম্পর্কিত খবর

ঢাবি চলচ্চিত্র সংসদের নতুন কমিটি
  • ১৪,সেপ্টেম্বর,২০২২ ১১:৫৯ AM